নাউরী মন্দির ও রথ ইংরেজিঃ Nauri Temple and Chariot এর আসল নামঃ “শ্রী শ্রী নিতাই লক্ষ্মী জনার্দ্দন জিউ মন্দির” যা, বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বিভাগ এর চাঁদপুর জেলার মতলব উত্তর উপজেলার পূর্ব নাউরী অবস্থি একটি দর্শনীয় স্থান। মন্দিরটি প্রায় ২১৯ বছরের পুরনো।

নাউরী মন্দির এর পূরণ দালান

মতলব উত্তর উপজেলা পরিচিতি পড়েছেন তো?

ইতিহাস

নাউরী মন্দির ও রথ বা শ্রী শ্রী নিতাই লক্ষ্মী জনার্দ্দন জিউ মন্দির সম্পর্কে তেমন কোন কাহিনী প্রচলন নেই তবে, এই মন্দির টি বাংলা তারিখ অনুযায়ী ১২০৬ তে স্থাপিত হয়েছে। হিন্দুদের ভগবান কে তাদের নামের পুর্বে শ্রী শ্রী ডাকা হয়।

১২০৬ সালে নিতাই লক্ষ্মী জনার্দ্দন প্রথম এই মন্দির স্থাপন করেন। তবে ২২শে পৌষ ১৩৩৯ (বাংলা) এই তারিখে শ্রী শ্রী রমণ চাঁদ গৌষমী প্রথম এই মন্দিরে মহা উৎসব পালন শুরু করেন।

অবস্থান ও স্থাপনাসমূহ

নাউরী মন্দির ও রথ বা শ্রী শ্রী নিতাই লক্ষ্মী জনার্দ্দন জিউ মন্দির এর অবস্থান বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বিভাগ এর চাঁদপুর জেলার মতলব উত্তর উপজেলার পূর্ব নাউরী হিন্দু পাড়ায় অবস্থিত। আমি এই মন্দির এবং রথ খুঁজতে গিয়ে সরজমিনে জানতে পারি যে এই মন্দির সম্পর্কে খুব কম মানুষই জানেন।

আরও অবাক হওয়ার বিষয় হচ্ছে যে, এই মন্দির এবং রথ সম্পর্কে খোদ নাউরী গ্রামের মানুষই ঠিক মত জানেন না! অথচ মতলব উত্তর উপজেলার দর্শনীয় স্থান গুলোর মধ্যে এই মন্দির এবং রথ একটি! যেটা সম্পর্কে উইকিপিডিয়া তে বিস্তারিত তথ্য না থাকলেও মতলব উত্তর উপজেলার দর্শনীয় স্থান হিসেবে রয়েছে।

নাউরী মন্দির ও রথ বা শ্রী শ্রী নিতাই লক্ষ্মী জনার্দ্দন জিউ মন্দির এর স্থাপনা সমূহ এর মধ্যে বর্তমানে যা যা রয়েছে তা হল-

  • রথ
  • ২টি পূরণ দালান
  • একটি তীর্থস্থান
  • একটি টিনের ঘর
  • একটি বড় দিঘী
  • একটি মন্দির

রথ

শ্রী শ্রী নিতাই লক্ষ্মী জনার্দ্দন জিউ মন্দির এ একটি রথ রয়েছে। যেটা কাঠ দিয়ে বানানো। নিচের ছবিতে একটি দুইচালা ঘরের মধ্যে জরাজীর্ণ কাঠের যে স্থাপনাটি দেখছেন এটিই রথ। যখন পুজোর সময় হয় তখন এখান থেকে এটিকে তীর্থস্থানে নিয়ে সাজানো হয়।

রথ

পূরণ দালান

পূরণ দালান গুলোর বয়স ২০০ বছর এর উপরে হয়ে গেছে ইতোমধ্যে। দালান গুলো দেখলেই বুজা যায় এরা যে বার্ধক্যকে পরিনত হয়েছে। দালান গুলোর সংস্কার হয়না বললেই চলে।

দালান এর পিছনের অংশ

তীর্থস্থান

শ্রী শ্রী নিতাই লক্ষ্মী জনার্দ্দন জিউ মন্দির এর তীর্থস্থান এর ফ্লোরটি পাকা করা। তবে এটিও নিচু চারচালা টিনের ঘরে অবস্থিত। মাঝ খানটাতে ৪টি পাকা পিলার এর উপর একটি ছোট ছাদ দেয়া হয়েছে। যা, টিনের চালা কে ভেদ করে দাঁড়িয়ে আছে।

মন্দিরের তীর্থস্থান

 

বড় দিঘী

মন্দিরের ঠিক পিছনেই বেশ বড় একটি দিঘী রয়েছে। যেটি এই শ্রী শ্রী নিতাই লক্ষ্মী জনার্দ্দন জিউ মন্দির এর সম্পত্তি। এই দিঘীতে মানুষ তাদের খাবারের জন্য পানি নেয়া থেকে শুরু করে স্নান করা সহ সব কাজেই ব্যাবহার করে থাকে। এছাড়া এই দিঘীতে মাছেরও চাষ করা হয়ে থাকে।

বড় দিঘী

আরও পড়ুনঃ খোদাই পুকুর রহস্য

হিন্দু পরিবার

নাউরী মন্দির ও রথ বা শ্রী শ্রী নিতাই লক্ষ্মী জনার্দ্দন জিউ মন্দির কে কেন্দ্র করে সেই ১২০৬ (বাং) সাল থেকেই এখানে হিন্দু পরিবার গড়ে উঠে। নাউরী গ্রামে এই একটি মাত্র হিন্দু পাড়া রয়েছে। আর এটি নাউরী বাজার থেকে পুর্ব দিকে অনেক ভিতরে পূর্ব নাউরী তে অবস্থিত।

নাউরী মন্দির কে কেন্দ্র করে গড়ে উঠা এর পাড়ায় মোট ২৮টি হিন্দু পরিবার রয়েছে। যারা ৪টি গোত্রে বিভক্ত। গোত্র গুলো হলঃ মালী, শিল, দোপা এবং দেবনাথ।

নাউরী মন্দির এর বর্তমান অবস্থা

নাউরী মন্দির এর বর্তমান অবস্থা খুব একটা সুমিচিন নয়। এই হিন্দু পাড়ার সবাই মিলে একটি পরিচালনা কমিটি করেছে মন্দিরটি পরিচালনা করার জন্য। বর্তমানে বলাই দেবনাথ উরফে বলাই তালুকদার এই মন্দিরটি পরিচালনা করেন।

এছাড়া যখন যেখান থেকে আর্থিক অনুদান পান সেটা দিয়ে শ্রী শ্রী নিতাই লক্ষ্মী জনার্দ্দন জিউ মন্দির পরিচালনা করা হয়ে থাকে।

নাউরী মন্দির ও রথ এর উৎসব

নাউরী মন্দিরে বছরে ৩মাস ভোগ হয়ে থাকে। মাস সমূহ হলঃ কার্তিক, মাঘ এবং বৈশাখ মাস। মন্দিরে পাঠ শুরু হয় পৌষ মাসের ১৬ তারিখ থেকে। আর মন্দিরে মহা উৎসব হয় ২২ তারিখে।

আরও পড়ুনঃ জজ নগর


ট্রিপডো ফেসবুক: TripDaw