ঢাকা জেলা পরিচিতি ইংরেজিঃ Dhaka District । ঢাকা জেলা এশিয়া মহাদেশের বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চলের ঢাকা বিভাগের একটি প্রশাসনিক এলাকা। ঢাকা বাংলাদেশের রাজধানী এবং এই জেলাতে বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি মানুষের বসবাস।

আজকে আমি আপনার সাথে ঢাকা জেলা পরিচিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। তো চলুন শুরু করা যাক…

প্রথমে চলুন ঢাকা জেলা সম্পর্কে একনজরে কিছু তথ্য জানা যাক।

একনজরে ঢাকা জেলা পরিচিতি

দেশের নাম বাংলাদেশ
বিভাগ ঢাকা বিভাগ
জেলা ঢাকা
জেলার আয়তন ৫৬৫.১০ বর্গমাইল
নির্বাচনী আসন ঢাকা-২০
বিভাগের কোড ৩০ ২৬
জনসংখ্যা (২০১১) ১,২৫,১৭,৩৬১ জন (প্রায়)
জনঘনত্ব ৮৬০০/কিমি২ (২২০০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার ৭০.৫০ %
উপজেলা ৫টি
সময় অঞ্চল বিএসটি (ইউটিসি+৬)
টেলিফোন এরিয়া কোড
ডায়ালিং কোড +৮৮০ ২
জরুরি নাম্বার ৯৯৯

ঢাকা জেলা ম্যাপ

ঢাকা জেলার অবস্থান ম্যাপ

আমরা ইতিমধ্যে জেনেছি যে, ঢাকা জেলার আয়তন ১৪৬৩.৬০ বর্গ কিলোমিটার। এর মধ্যে ঢাকা জেলার ভৌগোলিক সীমানা হচ্ছে, পূর্বে নারায়ণগঞ্জ জেলা পশ্চিমে মানিকগঞ্জ জেলা এবং দক্ষিণ পশ্চিমে ফরিদপুর জেলা, উত্তরে গাজীপুর জেলা ও টাঙ্গাইল জেলা, দক্ষিণে মুন্সিগঞ্জ জেলা ও রাজবাড়ী জেলা রয়েছে।

ঢাকা জেলার উপজেলা সমূহ

ঢাকা জেলায় মোট ৫টি উপজেলা রয়েছে। এগুলো হলোঃ

  • দোহার উপজেলা
  • কেরানীগঞ্জ উপজেলা
  • নবাবগঞ্জ উপজেলা
  • সাভার উপজেলা
  • ধামরাই উপজেলা
  • ঢাকা জেলার জলবায়ু

ঢাকা জেলার উপজেলার তথ্য

উপজেলার নাম আয়তন (বর্গ কিমি) ইউনিয়ন
সাভার ২৮০.১২ ১২
কেরানীগঞ্জ ১৬৬.৮৭ ১২
দোহার ১৬১.৪৯
নবাবগঞ্জ ২৪৪.৮০ ১৪
ধামরাই ৩০৩.৩৬ ১৬

ঢাকা জেলার আরও তথ্য

পৌরসভা ৩টি
ইউনিয়ন ১৪২+৫৯ (আংশিক
মৌজা ১৭৭১
গ্রাম ১৮৬৪
মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচিহ্ন স্মৃতিসৌধ ২টি
গণকবর ১০টি
স্মৃতিস্তম্ভ ১০টি
ভাস্কর্য ১০টি

ঢাকা জেলার সিটি কর্পোরেশন

সিটি কর্পোরেশন ২টি
মেট্রোপলিটন থানা ৪৯টি
সিটি ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন ৮১+ ৫৯ (আংশিক)
সিটি মহল্লা ও মৌজা ৮৪১টি

শিক্ষা সংক্রান্ত তথ্য

গড় হার ৭০.৫০ %
পুরুষ ৬৯.৫৮%
মহিলা ৫৮.৭৮%
বিশ্ববিদ্যালয় ৫১টি
মেডিকেল কলেজ ২৩টি
কলেজ ১৭৭টি
আইন কলেজ ৩টি
মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৪৫০টি
প্রাথমিক বিদ্যালয় ৭০০টি
মাদ্রাসা ১৮০টি

ঢাকা জেলা উল্লেখযোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ১৯২১
বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ১৯৬২
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ১৯৭০
ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ১৯৪৬
ইডেন মহিলা কলেজ ১৮৭৩
নটর ডেম কলেজ ১৯৪৯
আদমজী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ ১৯৬০
সেন্ট গ্রেগরী হাই স্কুল ১৮৯২
সরকারি মুসলিম হাই স্কুল ১৮৭৪
রোয়াইল প্রাথমিক বিদ্যালয় ১৮৮৭

ঢাকা জেলার আয়ের প্রধান উৎস

কৃষি ৭.৭০%
অকৃষি শ্রমিক ২.৪০%
শিল্প ৩.৫৬%
চাকরি ৩২.৩৪%
ব্যবসা ২৫.০৫%
পরিবহন ও যোগাযোগ ৮.৯৭%
নির্মাণ ৩.৪০%
ধর্মীয় সেবা ০.১৫%
রেন্ট অ্যান্ড রেমিটেন্স ৪.১৫%
অন্যান্য ১৩.১২%

ঢাকা জেলার ইতিহাস

১৬১০ খ্রীষ্টাব্দের আগে বাংলাদেশের রাজধানী ছিল রাজমহল। পরবর্তীতে ১৬১০ খ্রীষ্টাব্দে ইসলাম খান চিশতি সুবাহ বাংলার রাজধানী রাজমহল থেকে ঢাকায় স্থানান্তর করেন। তবে ইসলাম খান সম্রাটের নামের সাথে মিল রেখে জাহাঙ্গীরনগর নামকরণ করেন ।

মোঘল যুগে রাজধানী ঢাকা শহরটি ইতিহাসে প্রসিদ্ধি লাভ করে তবে এটি মোঘল-পূর্ব যুগের আগে থেকেই গুরুত্বধারণ করে আসছিল।

মজার বিষয় হচ্ছে, সম্রাটের নামের সাথে মিল রেখে এর নামকরণ জাহাঙ্গীরনগর করা হলেও সাধারণ মানুষের মুখে ঢাকা নামটিই থেকে যায়।

ঢাকা জেলা নদীর পাশে অবস্থানের কারণে মোঘল যুগ থেকেই স্থানীয় বাণিজ্যের কেন্দ্র ছিল এটি। এখানে বিখ্যাত এবং উচ্চমান সম্পন্ন সূতিবস্ত্র উৎপাদিত হত যা মসলিন নামে সবার কাছে পরিচিত ছিল।

বাংলাদেশের ইতিহাসের ধারাবাহিকতায় ১৯৫২ সাল থেকে শুরু করে ১৯৬৬, ১৯৭০ সালের সংগ্রামের ফসল হিসেবে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশ স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে এবং বিশ্বের দরবারে পরিচিতি লাভ করে।

১৮৬৪ খ্রিস্টাব্দে ঢাকা মিউনিসিপ্যালিটি গঠিত হয় এবং ১৯৬০ সালে এটিকে টাউন কমিটিতে রূপান্তরিত করা হয়। এরপর ১৯৭২ সালে টাউন কমিটি বাদ দিয়ে পৌরসভায় রূপান্তর করা হয় এবং ১৯৮৩ সালে একে মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনে উন্নীত করা হয়। ঢাকা শহরকে সিটি কর্পোরেশন রূপান্তর করা হয় ১৯৯০ সালে।

বাংলাদেশ স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের রাজধানী হিসেবে ঢাকা রাজনৈতিক, প্রশাসনিক কার্যকলাপ, সামাজিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও শিক্ষা কার্যক্রমের সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্ররূপে মর্যাদা লাভ করে আসছে।

ঢাকা জেলার জলবায়ু

১২ মাসে ঢাকা জেলার জলবায়ুর তাপমাত্রা দেখুনঃ

মাসের নাম তাপমাত্রা (ডিগ্রী সেলসিয়াস)
জানুয়ারি ১৪° – ২৫°
ফেব্রুয়ারি ১৭° – ২৮°
মার্চ ২১° – ৩৩°
এপ্রিল ২৪° – ৩৪°
মে ২৫° – ৩৩°
জুন ২৬° – ৩৩°
জুলাই ২৭° – ৩২°
আগস্ট ২৭° – ৩২°
সেপ্টেম্বর ২৬° – ৩২°
অক্টোবর ২৪° – ৩২°
নভেম্বর ১৯° – ৩০°
ডিসেম্বর ১৫° – ২৬°
সূত্রঃ গুগল

ঢাকা জেলার দর্শনীয় স্থান সমূহ

ঢাকা জেলায় অনেক দর্শনীয় স্থান রয়েছে। উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হলঃ

১। রমনা উদ্যান

২। সোহ্‌রাওয়ার্দী উদ্যান

৩। জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যান

৪। ঢাকা শিশু পার্ক

৫। বাংলাদেশ জাতীয় চিড়িয়াখানা

৬। বাংলাদেশ জাতীয় যাদুঘর

৭। মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘর

৮। বলধা গার্ডেন

৯। রোজ গার্ডেন

১০। বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটার

১১। হাতিরঝিল

১২। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

১৩। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

১৪। জল্লাদখানা বধ্যভূমি

১৫। দিয়াবাড়ি

১৬। বাংলাদেশ বিমান বাহিনী জাদুঘর

১৭। জাতীয় স্মৃতিসৌধ

১৮। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

১৯। লালবাগ কেল্লা

২০। ঢাকেশ্বরী মন্দির

২১। আহসান মঞ্জিল

২২। হোসেনী দালান

২৩। ছোট কাটরা

২৪। বড় কাটরা

২৫। কার্জন হল

২৬। সাত গম্বুজ মসজিদ

২৭। তারা মসজিদ

২৮। ঢাকা গেইট

২৯। পরীবিবির মাজার পার্ক

৩০। বাহাদুর শাহ পার্ক

৩১। নর্থব্রুক হল

৩২। জিনজিরা প্রাসাদ

৩৩। খান মোহাম্মদ মৃধা মসজিদ

৩৪। মুসা খান মসজিদ

৩৫। রমনা উদ্যান

৩৬। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার

৩৭। শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ – (রায়ের বাজার)

৩৮। জাতীয় সংসদ ভবন

৩৯। তিন নেতার মাজার

৪০। বিজ্ঞান জাদুঘর

৪১। সামরিক যাদুঘর

৪২। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘর

৪৩। রাজার বাগের জাদুঘর

৪৪। ডাক জাদুঘর

৪৫। টাকা জাদুঘর

৪৬। ঢাকা চিড়িয়াখানা প্রানী জাদুঘর

৪৭। সোহরাওয়ার্দি পাতাল জাদুঘর

৪৮। বাহাদুর শাহ্‌ পার্ক

৪৯। মৈনট ঘাট

৫০। শ্যামলী শিশুমেলা

৫১। শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

৫২। শহীদ বুদ্ধিজীবি স্মৃতিসৌধ

৫৩। ধানমন্ডি লেক

৫৪। রবীন্দ্র সরোবর

৫৫। গুলশান লেক পার্ক

পত্র পত্রিকা ও সাময়িকী (বাংলা)

১) প্রথম আলো

২) ইত্তেফাক

৩) ইনকিলাব

৪) ভোরের কাগজ

৫) বাংলার বাণী

৬) সংবাদ

৭) জনকণ্ঠ

৮) যুগান্তর

৯) সংগ্রাম

১০) রূপালী

১১) দৈনিক বাংলা

১২) দিনকাল

১৩) অর্থনীতি

১৪) মুক্তকণ্ঠ

১৫) আজকের কাগজ

১৬) দৈনিক ভোর

১৭) দেশ জনতা

১৮) জনপথ

১৯) দেশ বাংলা

২০) মানবজমিন

২১) বাংলাবাজার

২২) জাগ্রত কণ্ঠ

২৩) সাভার বার্তা

২৪) সাভার কণ্ঠ

২৫) বাংলাদেশ প্রতিদিন

২৬। বিডি নিউজ ২৪

পত্র পত্রিকা ও সাময়িকী (ইংরেজি)

১) নিউজ ডে

২) বাংলাদেশ টাইমস

৩) বাংলাদেশ অবজারভার

৪) দি ডেইলি স্টার

৫) দি ইনডিপেনডেন্ট

৬) দি নিউনেশন

৭) দি ফাইনান্সিয়াল এক্সপ্রেস

৮) প্রথম আলো ইংরেজি

৯। বিডি নিউজ ২৪ ইংরেজি

ঢাকা জেলা আধুনিক স্থাপত্য

জাতীয় সংসদ ভবন, বাংলাদেশ ব্যাংক ভবন, ভাসানী নভো থিয়েটার, বসুন্ধরা সিটি, যমুনা ফিউচার পার্ক, ফ্যান্টাসি কিংডম, হাতির ঝিল, বিমান বাহিনী জাদুঘর, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভো থিয়েটার, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর, নন্দন পার্ক, জাতীয় শিশু পার্ক, বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র ইত্যাদি।

ঢাকা জেলা উল্লেখযোগ্য নদী

ঢাকা জেলার উল্লেখযোগ্য নদী সমূহ হলোঃ

পদ্মা, ধলেশ্বরী, বুড়িগঙ্গা, তুরাগ, ইছামতি, বংশী, কালীগঙ্গা, গাজীখালী, কলমাই নদী ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

এছাড়া তুলসী খলকী খাল, ভাঙাভিটা খাল, আওনার খাল, রঘুনাথপুর বিল ও বেতলাই বিল উল্লেখযোগ্য।

সড়ক পথে ঢাকা জেলার দূরত্ব

বাংলাদেশের ৮ বিভাগ থেকে সড়ক পথে ঢাকা জেলার দূরত্ব নিচে দেয়া হলঃ

সিলেট ২৩৪.৫ কিলোমিটার
চট্রগ্রাম ২৯১.১ কিলোমিটার
রাজশাহী ২৪৫ কিলোমিটার
খুলনা ২৭৬.৭ কিলোমিটার
বরিশাল ২৪৫.৬ কিলোমিটার
রংপুর ৩০০.১ কিলোমিটার
ময়মনসিংহ ১০৯.৭ কিলোমিটার

ট্রিপডো ফেসবুক: TripDaw